Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১২ জুন, ২০১৮ ২১:০০ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১২ জুন, ২০১৮ ২১:০২
আরিফের শেষ বাজেট ৭৪৮ কোটি টাকার
শাহ্ দিদার আলম নবেল, সিলেট
আরিফের শেষ বাজেট ৭৪৮ কোটি টাকার

সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক) নির্বাচনের ডামাঢোল বাজতে শুরু করেছে। আগামী ৩০ জুলাই ভোটের দিনক্ষণ ঠিক করেছে নির্বাচন কমিশন। এর আগে চলতি মেয়াদে নিজের শেষ বাজেট দিলেন সিসিকের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। মঙ্গলবার বিকেলে সিলেট নগরীর একটি হোটেলের হলরুমে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বাজেট পেশ করেন তিনি। সমপরিমাণ আয় ও সমপরিমাণ ব্যয় ধরে ৭৪৮ কোটি ৬৪ লাখ ৪০ টাকার বাজেট ঘোষণা করেন মেয়র।

সিসিকের তৃতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতা বদর উদ্দিন আহমদ কামরানকে পরাজিত করে মেয়র নির্বাচিত হন বিএনপি নেতা আরিফুল হক চৌধুরী। এরপর ২০১৪-১৫ অর্থবছরের বাজেট পেশ করেছিলেন তিনি। তবে প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়া হত্যার ঘটনায় দুটি মামলায় জড়িয়ে কারান্তরীণ হওয়ায় ২০১৫-১৬ এবং ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেট দিতে পারেননি আরিফ। গত বছর কারামুক্ত হয়ে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেট দেন তিনি। সর্বশেষ মঙ্গলবার ঘোষিত বাজেট নিয়ে এ মেয়াদে তৃতীয়বারের মতো বাজেট পেশ করলেন আরিফুল হক চৌধুরী। 

মঙ্গলবার ঘোষিত সিসিকের বাজেটের উল্লেখযোগ্য আয়ের খাতগুলো হলো-হোল্ডিং ট্যাক্স ১৭ কোটি ৬৫ লাখ ৪৪ হাজার টাকা, স্থাবর সম্পত্তি হস্তান্তরের উপর কর ৮ কোটি টাকা, ইমারত নির্মাণ ও পুনঃনির্মাণের উপর কর ২ কোটি টাকা, পেশা ব্যবসার উপর কর ৮ কোটি ৫০ লাখ টাকা, বিজ্ঞাপনের উপর কর এক কোটি টাকা, পানির সংযোগ লাইনের মাসিক চার্জ বাবদ ৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা, পানির লাইনের সংযোগ ও পুনঃসংযোগের ফি এক কোটি টাকা, নলকূপ স্থাপন অনুমোদন ও নবায়ন ফি এক কোটি ৫০ লাখ টাকা, হোল্ডিং ট্যাক্সসহ অন্যান্য বকেয়া বাবদ ৮৭ কোটি ৪৮ লাখ ১৫ হাজার টাকা প্রভৃতি। 

বাজেটে ব্যয়ের খাত উল্লেখ করা হয়েছে সরকারি উন্নয়ন কর্মসূচিতে ২০ কোটি টাকা, অবকাঠামো নির্মাণ প্রকল্পে ১০০ কোটি টাকা, ছড়া সংরক্ষণ ও আরসিসি রিটেইনিং ওয়াল নির্মাণ প্রকল্পে ১১৬ কোটি টাকা, বাস টার্মিনালের আধুনিকায়নে ৫০ কোটি টাকা, জলাবদ্ধতা হ্রাসকরণ প্রকল্পে ৩ কোটি টাকা, ফিলিং স্টেশন নির্মাণে ২ কোটি টাকা, ২৭টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলরদের জন্য কার্যালয় স্থাপনে ২ কোটি টাকা প্রভৃতি।

নিজের বাজেট বক্তৃতায় মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বিগত দিনের সকল অর্জন সিটি করপোরেশনের সকলের এবং ব্যর্থতা তাঁর নিজের বলে মন্তব্য করেন। তিনি তাঁর বক্তব্যে প্রয়াত অর্থমন্ত্রী সাইফুর রহমান ও শাহ এএমএস কিবরিয়াকে স্মরণ করেন। বক্তব্যে নিজের উন্নয়নের ফিরিস্তিও তুলে ধরেন আরিফ। আগামী দিনে হকারদের পুনর্বাসন, আন্ডারগ্রাউন্ড ক্যাবল স্থাপন, উন্নত সুয়ারেজ ব্যবস্থাপনা, মেডিকেল বর্জ্যওে সঠিক ব্যবস্থাপনা, সিলেটের সবচেয়ে বড় বাস টার্মিনাল কদমতলির আধুনিকায়নসহ নানা প্রকল্প গ্রহণ করা হবে বলে জানান মেয়র।

বাজেট ঘোষণাকালে সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ জেড এম নুরুল হক, সচিব বদরুল হক, প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমানসহ সিসিকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ, সুধী সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

বিডি-প্রতিদিন/১২ জুন, ২০১৮/মাহবুব

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow