Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৮ মার্চ, ২০১৮ ০৮:৩৮ অনলাইন ভার্সন
গরমের শুরুতেই পানির তীব্র সংকট
সামছুজ্জামান শাহীন, খুলনা

গরমের শুরুতেই পানির তীব্র সংকট

পানির জন্য হাহাকার করছেন খুলনা নগরবাসী। গরমের তীব্রতা না ছড়াতেই বিভিন্ন এলাকায় তীব্র পানির সংকট দেখা দিয়েছে। পানি না পেয়ে বাইরে থেকে মিনারেল ওয়াটার কিনে অনেকে গৃহস্থালির কাজকর্ম সারছেন। বিশেষজ্ঞদের মতে, প্রয়োজনের তুলনায় কম বৃষ্টিপাত, নদীর নাব্যতা হ্রাস ও ভূগর্ভস্থ পানি উত্তোলনের তুলনায় তা স্তরে জমা না হওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

সরেজমিন দেখা গেছে, মহানগরীর শেখপাড়া, হাজী ইসমাইল রোড, গোবরচাকা, বাস্তুহারা, খালিশপুর, বয়রা, দৌলতপুর, সোনাডাঙ্গা, বসুপাড়া ও টুটপাড়া তালতলা এলাকায় পানির তীব্র সংকট রয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দা মশিউর রহমান জানান, এলাকার অনেক পাম্পের কার্যক্ষমতা কমে গেছে। পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়ায় পানি আসছে না। গৃহিণী মিনারা বেগম জানান, সারা রাত পানির জন্য অপেক্ষায় থাকতে হয়। কখনো মাঝরাত আবার কখনো ভোররাতের দিকে মোটরে একটু পানি আসে। ওয়াসার পানি তো পাওয়াই দুষ্কর। পানির জন্য এলাকায় হাহাকার দেখা দিয়েছে।

খুলনা ওয়াসা সূত্রে জানা গেছে, মহানগরীর ১৫ লাখ মানুষের প্রতিদিনের পানির চাহিদা ২৪ কোটি লিটার। বিপরীতে খুলনা ওয়াসা সরবরাহ করে মাত্র ১৩ কোটি ১০ লাখ লিটার। এটাও কাগজের হিসাব। ফলে বিপুল জনগোষ্ঠীর পানির জন্য নির্ভর করতে হয় নিজস্ব গভীর নলকূপের ওপর। কিন্তু শুষ্ক মৌসুমের শুরুতে পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়ায় টিউবওয়েল ও ওয়াসার বিভিন্ন উৎপাদক নলকূপে চাহিদা মতো পানি পাওয়া যাচ্ছে না। তবে সংকট মোকাবিলায় জরুরি ব্যবস্থার কথা জানান খুলনা ওয়াসার উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী এমডি কামাল উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, শেখপাড়া ও হাজী ইসমাইল রোডের দুটি উৎপাদক পানির পাম্প অতিরিক্ত চাপের কারণে বিকল হয়ে যায়। এগুলো মেরামত করা হয়েছে। এ ছাড়া বিভিন্ন উৎপাদক নলকূপসমূহের পানির স্তর নিচে নেমে গেছে। যার কারণে টিউবওয়েল থেকেও মানুষ প্রয়োজনের তুলনায় কম পানি পাচ্ছে।

আপনার মন্তব্য

up-arrow