Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ৪ মে, ২০১৮ ০৯:৩৭ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ৪ মে, ২০১৮ ১৩:৪১
ঢামেকে শিশুর গাল খেয়ে ফেলল ইঁদুর
নিজস্ব প্রতিবেদক
ঢামেকে শিশুর গাল খেয়ে ফেলল ইঁদুর
ফাইল ছবি

রাজধানীর বারিধারা নর্দায় গরম ডালে পড়ে দগ্ধ হয় দেড় বছরের এক শিশু। গতকাল সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে শিশুটির মৃত্যু হয়। তার নাম সোহান হাওলাদার। মৃত্যুর পরপর তার লাশটি ঢামেক জরুরি বিভাগের হিমাগারে রাখা হয়। কিছু সময় পর লাশ বের করে দেখা যায় তার এক গাল ইঁদুরে খেয়ে ফেলেছে। এ খবর পেয়ে হাসপাতাল পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন ঘটনাস্থলে ছুটে যান। এ সময় তিনি শিশুটির পরিবারের সদস্যদের সান্ত্বনা দেন এবং বলেন, বিষয়টি খুবই বেদনাদায়ক। জানা যায়, ২৬ এপ্রিল দুপুরে বাসায় গরম ডালে পড়ে যায় শিশুটি। এতে তার শরীরের ১৬ শতাংশ পুড়ে  যায়। সোহাগ হাওলাদার ও মিম আকতার দম্পতির একমাত্র সন্তান ছিল শিশুটি। তাদের গ্রামের বাড়ি পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার কনকদিয়ায়। শিশুর বাবা সোহাগ হাওলাদার জানান, তার ছেলে মারা যাওয়ার পর লাশ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মর্গের ফ্রিজে রাখেন হাসপাতালের লোকেরা। পরে গুলশান থানার কর্মকর্তা এলে লাশটি বের করার পর দেখা যায় সোহানের বাঁ গালের বেশকিছু অংশ নেই। এ সময় গালের ক্ষতস্থান থেকে রক্ত ঝরছিল। ধারণা করা হয়, ইঁদুর কিংবা বেজি তার গালের বেশকিছু অংশ খেয়ে ফেলেছে। গুলশান থানার এসআই ফারুক আলম জানান, শিশুটির বাবার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিকালে সোহানের লাশটি বিনা ময়নাতদন্তে হস্তান্তর করা হয়। ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির এসআই বাচ্চু মিয়া জানান, লাশ রাখার ফ্রিজে পেছনের দিকে কোনো ছিদ্র ছিল। অথবা দরজা খোলা ছিল; যা দিয়ে ইঁদুর বা বেজি ভিতরে ঢুকে এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/৪ মে ২০১৮/ওয়াসিফ

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow