Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২২ মে, ২০১৮ ১৪:১৯ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ২২ মে, ২০১৮ ১৯:০৬
বৃষ্টি ও জলাবদ্ধতায় রাজধানীবাসীর দুর্ভোগ চরমে
অনলাইন প্রতিবেদক
বৃষ্টি ও জলাবদ্ধতায় রাজধানীবাসীর দুর্ভোগ চরমে
বৃষ্টিতে মঙ্গলবার রাজধানীর বনানীতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এতে দুর্ভোগে পড়েন চলাচলকারীরা। ছবি: জয়ীতা রায়

সারাদেশে গত কয়েকদিন ধরেই বৃষ্টির কারণে দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন মানুষ। মঙ্গলবার ভোররাত থেকে রাজধানীতেও থেমে থেমে মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছে। দুপুরে সেই বৃষ্টির মাত্রা আরও বেড়েছে। আর এর ফলে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন দিনমজুর, স্কুলগামী শিক্ষার্থী, খেটে খাওয়া লোকজনসহ সকল শ্রেণি পেশার মানুষ। বৃষ্টির কারণে কর্মস্থলে বা কোনও জরুরী প্রয়োজনে বাইরে যেতেও ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন তারা। ফুটপাতের দোকানপাট বন্ধ তো আছেই।

রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে ঘুরে সরেজমিনে দেখা যায়, অপেক্ষাকৃত নিচু স্থানগুলোতে হাটুপরিমাণ পানি জমে গেছে। সেই পানিতে ভাসছে নোংরা-আবর্জনা। বিশেষ করে নগরীর মিরপুর শান্তিনগর, মালিবাগ, মৌচাক, আরামবাগ, বাড্ডা, রামপুরা ও পুরান ঢাকার বিভিন্ন এলাকাসহ বেশ কিছু স্থানে পানি জমে জলজট সৃষ্টি হয়েছে। এতে যানবাহনে ভোগান্তি বেড়েছে।

এছাড়া নগরীর অধিকাংশ সড়কের পাশে সিটি কর্পোরেশনের ড্রেন ও ওয়াসার পানির সংযোগ লাইনসহ বিভিন্ন উন্নয়ন সংস্থার কাজ চলমান থাকায় খোঁড়া গর্তে পানি জমে সড়কের সঙ্গে সমান হয়ে গেছে। এসব গর্তে পড়ে দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন পথচারীরা।  

পথচারীরা জানান, বাসে উঠা যাচ্ছে না। বৃষ্টিতে রাস্তায় বাস কম। রিকশা ভাড়া দ্বিগুণ হয়ে গেছে। আবার ভাঙাচুরা রাস্তার কারণে অনেক এলাকায় রিকশা যেতে চাইছে না। ফুটপাত দিয়ে হেঁটে যাওয়ারও উপায় নেই। কিছুদূর পরপরই ময়লা, কাদা, পানি জমে আছে।  

উল্লেখ্য,আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, ঢাকাসহ দেশের দক্ষিণাঞ্চলে আরও ২ থেকে ৩ দিন বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকতে পারে। দেশের মধ্যাঞ্চল ও দক্ষিণাঞ্চল বিশেষ করে ঢাকা, কুমিল্লা, মুন্সীগঞ্জ, মাদারীপুর, শরীয়তপুরের অনেক জায়গায় বৃষ্টি ও ছোট আকারের কালবৈশাখী ঝড় অব্যাহত থাকবে। সেই সাথে বিজলী চমকানোসহ বজ্রপাতের সম্ভাবনাও রয়েছে।

এছাড়া মঙ্গলবার সকালে ঢাকা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় মাঝারী থেকে ভারী বৃষ্টি হয়েছে। এ সময় রংপুর ও রাজশাহী বিভাগে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা কম থাকলেও আগামী ২৭ থেকে ২৮ মে তা বাড়তে পারে বলেও জানায়া আবহাওয়া অধিদপ্তর।

বিডি-প্রতিদিন/ ই-জাহান

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow