Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৪ জুন, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৪ জুন, ২০১৮ ০১:৪৬
ঢাকায় চাঁদাবাজ থাকবে না : আছাদুজ্জামান
নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকা মহানগরীতে কোনো চাঁদাবাজ থাকবে না। আমরা যদি থাকি, চাঁদাবাজ থাকবে না। চাঁদাবাজ যেই হোক, তার কোমরে রশি দিয়ে বিচারে সোপর্দ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আমাদের অবস্থান জিরো টলারেন্স। গতকাল সকালে সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালে ঈদযাত্রার পরিস্থিতি পরিদর্শনে গিয়ে ডিএমপি কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া এ মন্তব্য করেন। ডিএমপি কমিশনার বলেন, আমাদের টহল জোরদার করব। বিভিন্ন স্টার্টিং পয়েন্টে তল্লাশি চৌকি বসাব, চেকপোস্ট বসাব। ইমপর্ট্যান্ট রাস্তাগুলোকে আমরা কোণ দিয়ে জিগ-জ্যাগ করে দেব, যাতে সহজে আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে পারি। সব মিলে আমরা একটি সমন্বিত নিরাপত্তা ব্যবস্থা তৈরি করব। ঈদ উপলক্ষে কেউ যাতে অতিরিক্ত বাস ভাড়া বা চাঁদাবাজি করতে না পারে, সে জন্য ডিএমপির মোবাইল কোর্ট কাজ করছে। যারাই অতিরিক্ত ভাড়া নিচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে আর্থিক জরিমানাসহ আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। ঈদে যাত্রীদের নিরাপদে ও নির্বিঘ্নে গন্তব্যস্থলে পৌঁছাতে পুলিশের সঙ্গে এক হয়ে কাজ করছে পরিবহন মালিক-শ্রমিক। ঈদে ফাঁকা রাজধানীতে নিরাপত্তা কেমন থাকবে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে ডিএমপি প্রধান বলেন, আগের বছরের তুলনায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। ঈদে বাসাবাড়ি, অফিসের নিরাপত্তার জন্য নিজস্ব সিকিউরিটি গার্ড রেখে যাবেন। তাদের সঙ্গে সমন্বয় করে পুলিশ নিরাপত্তা দেবে।

ঢাকায় চাঁদাবাজ থাকবে না : আছাদুজ্জামান

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকা মহানগরীতে কোনো চাঁদাবাজ থাকবে না। আমরা যদি থাকি, চাঁদাবাজ থাকবে না। চাঁদাবাজ যেই হোক, তার কোমরে রশি দিয়ে বিচারে সোপর্দ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আমাদের অবস্থান জিরো টলারেন্স। গতকাল সকালে সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালে ঈদযাত্রার পরিস্থিতি পরিদর্শনে গিয়ে ডিএমপি কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া এ মন্তব্য করেন। ডিএমপি কমিশনার বলেন, আমাদের টহল জোরদার করব। বিভিন্ন স্টার্টিং পয়েন্টে তল্লাশি চৌকি বসাব, চেকপোস্ট বসাব। ইমপর্ট্যান্ট রাস্তাগুলোকে আমরা কোণ দিয়ে জিগ-জ্যাগ করে দেব, যাতে সহজে আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে পারি। সব মিলে আমরা একটি সমন্বিত নিরাপত্তা ব্যবস্থা তৈরি করব। ঈদ উপলক্ষে কেউ যাতে অতিরিক্ত বাস ভাড়া বা চাঁদাবাজি করতে না পারে, সে জন্য ডিএমপির মোবাইল কোর্ট কাজ করছে। যারাই অতিরিক্ত ভাড়া নিচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে আর্থিক জরিমানাসহ আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। ঈদে যাত্রীদের নিরাপদে ও নির্বিঘ্নে গন্তব্যস্থলে পৌঁছাতে পুলিশের সঙ্গে এক হয়ে কাজ করছে পরিবহন মালিক-শ্রমিক। ঈদে ফাঁকা রাজধানীতে নিরাপত্তা কেমন থাকবে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে ডিএমপি প্রধান বলেন, আগের বছরের তুলনায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। ঈদে বাসাবাড়ি, অফিসের নিরাপত্তার জন্য নিজস্ব সিকিউরিটি গার্ড রেখে যাবেন। তাদের সঙ্গে সমন্বয় করে পুলিশ নিরাপত্তা দেবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow