Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১২ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১১ জুলাই, ২০১৮ ২৩:৩২
বরিশাল
নানা অভিযোগে চলছে প্রচার
নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল
নানা অভিযোগে চলছে প্রচার
প্রতীক পাওয়ার পর বরিশালে দ্বিতীয় দিনের প্রচারণায় বিএনপির মেয়র প্রার্থী মজিবর রহমান সরেয়োর ও আওয়ামী লীগের সাদিক আবদুল্লাহ —বাংলাদেশ প্রতিদিন

সরকারবিরোধী মেয়র প্রার্থীদের নানা অভিযোগের মধ্য দিয়ে বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রচারণার দ্বিতীয় দিন অতিবাহিত হয়েছে। বিএনপির প্রার্থী প্রশাসনের বিরুদ্ধে বৈষম্যমূলক আচরণের অভিযোগ করেছেন। জাপা প্রার্থী প্রশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষমতাসীন একটি পরিবারকে ঘিরে লেজুড়বৃত্তি এবং বাসদের প্রার্থী তাদের কর্মী-সমর্থকদের বাধা-হুমকি দেওয়াসহ সরকারি দলের বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছেন। কমিউনিস্ট পার্টির প্রার্থী ক্ষমতাসীনদের বিরুদ্ধে কালো টাকা ও পেশিশক্তির           অপব্যবহারের কথা বলেছেন। যদিও বিরোধী প্রার্থীরা নৌকার পক্ষে জোয়ার দেখে ‘অভিযোগের জন্য অভিযোগ’ করেছেন বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগ মেয়র প্রার্থী সাদিক আবদুল্লাহ। প্রতিদ্বন্দ্বী মেয়র প্রার্থীদের বিরুদ্ধে পাল্টা কোনো অভিযোগ নেই সাদিকের। আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরুর দ্বিতীয় দিন গতকাল সকাল পৌনে ১১টায় নগরীর জেলখানা মোড় থেকে গণসংযোগসহ লিফলেট বিতরণ করেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ার। এ সময় উন্নয়নের নানা প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধানের শীষের পক্ষে ভোট চান তিনি। গণসংযোগকালে সরোয়ার পুলিশের বিরুদ্ধে বৈষম্যমূলক আচরণের অভিযোগ করে বলেন, প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর মঙ্গলবার দুপুরে সদর রোডের দলীয় কার্যালয় চত্বর থেকে তার উপস্থিতিতে নেতা-কর্মীরা ধানের শীষের মিছিল করতে চাইলে পুলিশ তাদের বাধা দেয়। অথচ একই সময়ে পুলিশের সামনে দিয়ে সদর রোডে নৌকার একটি মিছিল হলেও তাদের কিছুই বলেনি পুলিশ।

বেলা ১১টায় নগরীর পোর্ট রোডের ট্রলারঘাট এলাকায় গণসংযোগ করে লাঙল মার্কায় ভোট চান জাতীয় পার্টির প্রার্থী ইকবাল হোসেন তাপস। এ সময় নির্বাচনের সময়ে নগরীতে জাতীয় পতাকাবাহী গাড়িসহ ক্ষমতাসীন একটি পরিবারের বিরুদ্ধে প্রভাব বিস্তার এবং ওই পরিবারকে ঘিরে প্রশাসনের বিরুদ্ধে লেজুড়বৃত্তির অভিযোগ করেন জাপা প্রার্থী তাপস।

একই সময়ে কমিউনিস্ট পার্টির মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট এ কে আজাদের নেতৃত্বে কাস্তে মার্কার সমর্থনে সদর রোডে লাল পতাকা মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। এ কে আজাদ ক্ষমতাসীনদের বিরুদ্ধে কালো টাকা ও পেশিশক্তির অবৈধ ব্যবহারের অভিযোগ করেন।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় সদর রোডে প্রতীকী মইসহ গণসংযোগ করেন বাসদের মেয়র প্রার্থী ডা. মনীষা চক্রবর্তী। গণসংযোগকালে জনগণের বরিশাল গড়ার জন্য ভোটারদের সমর্থন কামনা করেন তিনি। এ সময় ডা. মনীষা ক্ষমতাসীনদের বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনসহ প্রশাসনের বিরুদ্ধে বৈষম্যমূলক আচরণের অভিযোগ করেন।

এদিকে বেলা সাড়ে ১১টায় নগরীর মল্লিক রোডের সিস্টার ডে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গণসংযোগসহ মতবিনিময় করেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী সাদিক আবদুল্লাহ। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষায় নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার জন্য ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

বিরোধী প্রার্থীদের অভিযোগ প্রসঙ্গে সাদিক আবদুল্লাহ বলেন, নৌকা মার্কার জোয়ার দেখে দিশেহারা হয়ে শুধু ‘অভিযোগের জন্যই অভিযোগ’ করছেন তারা। প্রতিদ্বন্দ্বী কোনো মেয়র প্রার্থীর বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ নেই সাদিকের।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

এই পাতার আরো খবর
up-arrow