Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১১ জুলাই, ২০১৮ ২০:০৮ অনলাইন ভার্সন
রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় বীর মুক্তিযোদ্ধা এনাম আহসানের দাফন সম্পন্ন
নোয়াখালী প্রতিনিধি:
রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় বীর মুক্তিযোদ্ধা এনাম আহসানের দাফন সম্পন্ন

রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় নোয়াখালীর বীর মুক্তিযোদ্ধা, পরিবেশবাদী লেখক ও কবি এনাম আহসানের (৭৩) দাফন সম্পন্ন হয়েছে। 

মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১১টায় নোয়াখালী পৌরসভার লক্ষীনারায়পুরে নিজ বাসায় মুক্তিযোদ্ধা এনাম আহসান শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, চার মেয়ে ও এক ছেলে সহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন এবং শুভাকাঙ্খী রেখে গেছেন।

বুধবার দুপুর ১২টায় জেলা জামে মসজিদের সামনে মরহুমের প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় নোয়াখালী পৌরসভার চেয়ারম্যান শহিদ উল্যাহ খাঁন সোহেল, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জেলা ইউনিটের সাবেক কমান্ডার ফজলুল হক বাদল, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট নোয়াখালীর সাধারণ সম্পাদক এমদাদ হোসেন কৈশোর সহ মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক, সংস্কৃতিকর্মী সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজন অংশগ্রহণ করেন।

এ সময় সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ সোহেল রানার উপস্থিতিতে মরহুমের কফিনে রাষ্ট্রীয় সম্মান প্রদর্শন করা হয়। এরপর বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

বাদ জোহর তাঁর গ্রামের বাড়ি কবিরহাট উপজেলার ধানসিঁড়ি ইউনিয়নের জগদানন্দের  মকবুল চৌধুরীর হাটে  দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার, ডেপুটি কমান্ডার, ইউপি চেয়ারম্যান সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং মরহুমের আত্মীয় স্বজন অংশগ্রহণ করেন। এ সময় কবিরহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মবর্তার উপস্থিতিতে মরহুমের কফিনের রাষ্ট্রীয় সম্মান প্রদর্শন করা হয়। পরে পারিবারিক কবস্থানে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাঁর দাফন সম্পন্ন হয়।

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জেলা ইউনিটের সাবেক কমান্ডার ফজলুল হক বাদল জানান, কবি এনাম আহসান মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে বিএলএফের (মুজিব বাহিনী) নোয়াখালী সদর পূর্বঞ্চলে টিম লিডারের দায়িত্ব পালন করেন। যুদ্ধের শুরুতেই তিনি ভারতের প্রশিক্ষণ নিতে যান। সেখান থেকে দেশে ফিরে কোম্পানীগঞ্জের তালমাহমুদের হাট সহ বিভিন্ন স্থানে সম্মুখযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। ৭ ডিসেম্বর নোয়াখালী জেলা শহর মাইজদী শত্রমুক্ত করার জন্য যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন তিনি।

স্বাধীনতার পর তিনি সরকারি চাকুরি থেকে স্বেচ্ছায় অবসর নিয়ে কবিতাচর্চা ও লেখালেখি সহ বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়েন। তার নেতৃত্বে নোয়াখালী খাল পুনঃখনন, পাট ও পরিবেশ আন্দোলন সহ জেলায় বিভিন্ন সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলা হয়।

কবি এনাম আহসানের একমাত্র ছেলে সজিব হাসান জানান, তিনি দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকার পর মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণজনিত কারণে মাইজদীতে ইন্তেকাল করেন। 

বীর মুক্তিযোদ্ধা ও কবি এনাম আহসানের মৃত্যুতে নোয়াখালী পৌরসভা, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জেলা ইউনিট, নোয়াখালী প্রেসক্লাব ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট নোয়াখালী সহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে শোক প্রকাশ করা হয়েছে।

বিডি-প্রতিদিন/ ই-জাহান

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow