Bangladesh Pratidin

ফোকাস

  • দশ জেলায় বন্দুকযুদ্ধে পৌর কাউন্সিলরসহ নিহত ১০
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:৩১
ইন্টারভিউ । তানহা তাসনিয়া
‘ভালো থেকো’ বড় বাজেট, মৌলিক গল্প আর দুর্দান্ত নির্মাণের ছবি
পান্থ আফজাল
‘ভালো থেকো’ বড় বাজেট, মৌলিক গল্প আর দুর্দান্ত নির্মাণের ছবি

৯ ফেব্রুয়ারি মুক্তি পাচ্ছে জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত তানহা তাসনিয়া অভিনীত তৃতীয় ছবি ‘ভালো থেকো’। এই ছবিতে তার বিপরীতে রয়েছেন চিত্রনায়ক আরিফিন শুভ ও আসিফ ইমরোজ। ছবির প্রচারণা ও সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আজকের আলাপন—

 

 

কেমন আছেন? ছবির প্রচারণা কেমন চলছে?

বেশ কয়েকদিন যাবৎ আমি অসুস্থ। ব্যাক পেইনের কারণে ঠিকমতো কোনো কাজই করতে পারছি না। তারপরও দম ফেলার ফুরসত নেই। প্রমোশনের জন্য সব চ্যানেল, রেডিও, প্রিন্ট মিডিয়া, ফেসবুকসহ বিভিন্ন ডিজিটাল প্লাটফর্মে প্রচার চালানো হচ্ছে। অলরেডি পোস্টারও লাগানো হয়েছে। আর রিলিজের ২-৩ দিন আগে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে যাব ছবির ক্যাম্পেইন করতে। রিলিজের সময় হলে হলে আমরা দলবেঁধে থাকব। এখন আমি আর শুভ ভাই একসঙ্গে সব অনুষ্ঠানে অংশ নিচ্ছি।

 

কথা ছিল ২ তারিখ কিন্তু ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে ৯ তারিখ...

হুম... ৯ তারিখে। ২ তারিখে মুক্তি দেওয়ার প্ল্যান ছিল কিন্তু কিছু কারণে তা সম্ভব হয়নি। এখন প্রতিটি মুহূর্ত খুব উত্তেজনায় পার করছি। একটু নার্ভাসও বটে। অনুভূতি মনে হচ্ছে পরীক্ষা দিয়েছি আর ৯ ফেব্রুয়ারি তার ফল বের হবে। কী হবে জানি না, তবে দর্শক ছবিটি দেখে বিনোদন পাবে বলে আমার বিশ্বাস।

 

‘ভালো থেকো’তে আপনার চরিত্র সম্পর্কে বলুন...

আমি বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়া ইনোসেন্ট একটা মেয়ে, নাম নীলা। পরিবারের অনেক আদরের মেয়ে। শুভ আর আমি বেয়াই-বেয়াইন। আমার মাঝে বাঙালি মেয়ে নিজেদের খুঁজে পাবেন।

 

ছবিতে তো আপনার দুই নায়ক?

আমার বিপরীতে অভিনয় করেছেন আরিফিন শুভ ও আসিফ ইমরোজ। পরিচালনা করেছেন জাকির হোসেন রাজু। সিনেমাটি প্রযোজনা করেছে দি অভি কথাচিত্র। সব মিলিয়ে একটা ধামাকা কম্বিনেশন বলা যায়।

 

শুভর সঙ্গে ক্যামিস্ট্রি কেমন হয়েছে?

সিনিয়র শিল্পী হলেও শুভ ভাই আমার সঙ্গে বন্ধুর মতো আচরণ করেছেন। সহশিল্পী হিসেবে আমাকে অনেক সাহায্য করেছেন। আমাদের বোঝাপড়াটা ভালো। আশা করি, আমাদের রসায়ন দর্শক পছন্দ করবেন।

 

ইতিমধ্যে ছবির গানও প্রকাশ হয়েছে।

প্রকাশ হয়েছে ‘ভালো থেকো’ সিনেমার তিনটি গান- বিয়ে, হিল ও ‘মন দিওয়ানা’। গানগুলো শ্রোতারা পছন্দ করেছে। এর মধ্যে ‘মন দিওয়ানা’ এক পলকে মন কেড়ে নিয়েছে নতুন এসব ট্র্যাক।

 

এমন কী আছে যা দেখতে দর্শক সিনেমা হলে যাবে?

অনেক বড় বাজেটের ছবি, ভালো পরিচালক দ্বারা নির্মিত। পারিবারিক বন্ধনের সুন্দর একটি গল্প পাবেন এ সিনেমায়। ভালো থেকো মৌলিক গল্পের ছবি। পরিবারকে নিয়ে দেখার ছবি। সিনেমা শিল্পের এ দুর্দশায়ও ‘ভালো থেকো’ আমার মনে হয় সবকিছু উতরে যাবে। ভালো থেকো মানুষকে ভালো রাখবে।        

এই পাতার আরো খবর
up-arrow