Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৪ জুন, ২০১৮ ১৬:৩৯ অনলাইন ভার্সন
ইরানকে বিমান দেবে না বোয়িং
অনলাইন ডেস্ক
ইরানকে বিমান দেবে না বোয়িং
ফাইল ছবি

পরমাণু ইস্যুতে ক্রমশই উত্তপ্ত হয়ে উঠছে যুক্তরাষ্ট্র-ইরান সম্পর্ক। চলছে বাকযুদ্ধ আর পাল্টাপাল্টি হুমকি। আর তারই জের ধরে মার্কিন বিমান সংস্থা বোয়িং জানিয়েছে, ইরানের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার কারণে বোয়িং তেহরানকে কোনো বিমান সরবরাহ করবে না।

বোয়িং এক ঘোষণায় দাবি করেছে, ইরানের সঙ্গে বিমান বিক্রির চুক্তি না থাকায় তেহরানকে কোনো বিমান দেওয়া হবে না।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গতমাসে ইরানের পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গিয়ে তেহরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহালের ঘোষণা দেওয়ার পর বোয়িং এই ব্যাপারে তার অবস্থান স্পষ্ট করল। এর আগে ওই কোম্পানি ইরানকে বিমান সরবরাহের ব্যাপারে সুস্পষ্ট কোনো বক্তব্য না দিয়ে শুধু একথা জানিয়েছিল যে, ইরানের ব্যাপারে তারা ওয়াশিংটনের নীতি অনুসরণ করবে।

এদিকে, বোয়িং এখন চুক্তির কথা অস্বীকার করলেও ২০১৫ সালের জুলাই মাসে যুক্তরাষ্ট্রসহ ছয় জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে ইরানের পরমাণু সমঝোতা সই হওয়ার পর ওই কোম্পানি ইরানের একাধিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে বিমান বিক্রির চুক্তিতে আবদ্ধ হয়েছিল। 

এ ব্যাপারে বোয়িং ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে জানিয়েছিল, ইরানের রাষ্ট্রীয় বিমান পরিবহন সংস্থা- ইরান এয়ারকে ১,৬৬০ কোটি ডলার মূল্যে ৮০টি যাত্রীবাহী বিমান সরবরাহ করার ব্যাপারে তারা তেহরানের সঙ্গে সমঝোতায় পৌঁছেছে।

পাশাপাশি ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে মার্কিন কোম্পানিটি ইরানের ‘অসেমান’ এয়ারলাইন্সের কাছে ৬০টি ‘বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স’ বিমান বিক্রির জন্য চুক্তিবদ্ধ হওয়ার কথাও জানিয়েছিল। 

বিডি প্রতিদিন/ ১৪ জুন ২০১৮/ ওয়াসিফ

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow