Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : সোমবার, ১৬ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৫ এপ্রিল, ২০১৮ ২২:৫১
গাজীপুরে ৯ মেয়র প্রার্থীই বৈধ
গাজীপুর প্রতিনিধি

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র বাছাই শুরু হয়েছে গতকাল। দুই দিনব্যাপী মনোনয়নপত্র যাচাই বাছায়ের কাজ চলবে আজ বিকাল পর্যন্ত। সকালে জেলা শহরের বঙ্গতাজ অডিটরিয়ামে সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা রকিব উদ্দিন মণ্ডলের নেতৃত্বে মেয়র, সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থীদের উপস্থিতিতে মনোননয়পত্র বাছাইয়ের কাজ শুরু হয়। দুপুরে যাচাই-বাছাই শেষে ৯ জন মেয়র প্রার্থীর প্রার্থিতা বৈধ ঘোষণা করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। এদের মধ্য আওয়ামী লীগ প্রার্থী মো. জাহাঙ্গীর আলম, বিএনপির হাসান উদ্দিন সরকার, জাসদের রাশেদুল হাসান রানা, ইসলামী ঐক্যজোটের মো. ফজলুর রহমান, বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) গাজী রুহুল আমিন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নাসির উদ্দিন, ইসলামী ফ্রন্টের মো. জালাল উদ্দিন, জামায়াত নেতা স্বতন্ত্র মো. সানাউল্লাহ ও স্বতন্ত্র ফরিদ আহম্মেদ। অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আফসার উদ্দিনের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের প্রথম দিন গতকাল মেয়রদের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই হয়েছে। এ ছাড়া ১-৯ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত এবং সাধারণ ১-২৭ নং ওয়ার্ডের মনোনয়নপত্র বাছাই সম্পন্ন হয় গতকাল। আজ বিকাল পর্যন্ত বাকি সংরক্ষিত ওয়ার্ড ও সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের মনোনয়নপত্র বাছাই করা হবে বলে জানান নির্বাচন কর্মকর্তা। গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৩ এপ্রিল। নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৫ মে।

জনতা ক্যাম্পেইন করছে : এদিকে গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, ‘জনতা উৎসবমুখর পরিবেশে তাদের প্রার্থীকে জয়ী করতে নিজেরাই ক্যাম্পেইন করছে। এটা ভোটারদের কাজ।’ গতকাল সকালে গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় প্রাঙ্গণে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, তিনি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। নির্বাচনী আচরণবিধি মেনেই প্রচার-প্রচারণা চালাবেন।

মেয়র মান্নানের প্রতিশ্রুতি পূরণের প্রত্যয় : মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হলে বর্তমান মেয়র আবদুল মান্নানের প্রতিশ্রুতি পূরণের পাশাপাশি নতুন প্রজন্মের তরুণদের জন্য কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন বিএনপি সমর্থিত মেয়রপ্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার। গতকাল সকালে তার মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষিত হলে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় প্রাঙ্গণে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন। নির্বাচনে এখনো লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি হয়নি বলে অভিযোগ করে তিনি বলেন, ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড ইসির কর্মেই প্রমাণ হবে।’

নাগরিক সেবাই হবে আমার প্রধান কাজ : গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, মেয়র নির্বাচিত হলে নাগরিক সেবাই হবে আমার প্রধান কাজ। এ অঞ্চলের মানুষের ভালোবাসার কারণেই আমি নির্বাচনে নেমেছি। আমি জনগণের সঙ্গে দীর্ঘদিন ছিলাম, আছি, থাকব। যার কারণেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে দলীয় মনোনয়ন দিয়েছেন। আমি দলের সব নেতা-কর্মী ও সাধারণ মানুষকে নিয়েই আবার নতুন করে নগর সাজাব। গতকাল সকালে বাংলাদেশ প্রতিদিনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, কোনো দ্বন্দ্ব, কোনো রাগ নয় সব ভুলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে গাজীপুরবাসীর উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। আমি সে লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছি। আমার আর্থিক কোনো লোভ-লালসা নেই, ব্যক্তিগত স্বার্থ নেই। শুধু সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়ন, নগর উন্নয়ন, নাগরিক সেবা করার উদ্দেশেই মেয়র নির্বাচন করা। আমি গাজীপুরের বাসিন্দা, তাই এই নগরীর মানুষের বেহাল দশার চিত্র দেখেই আমি এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমার বিশ্বাস আগামী ১৫ মে সিটি নির্বাচনে লক্ষাধিক ভোটের ব্যবধানে নৌকার বিজয় হবে।

 মানুষ ভোটের অপেক্ষায় দিন গুনছে। নগরজুড়ে ভোটের আমেজ বইছে। বর্তমান মেয়র বিভিন্ন কারণে নগর উন্নয়নে ব্যর্থ হয়েছে। যার ফলে গাজীপুর সিটি এখন ডাস্টবিনের নগরী হিসেবে পরিচিত।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow