Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৭ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৬ এপ্রিল, ২০১৮ ২৩:০৬
থেরাপি নিচ্ছেন আয়েশা, ব্রেন কাজ করছে না রাজীবের
নিজস্ব প্রতিবেদক

সাভারের সিআরপিতে রবিবার বসা মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী দুই বাসের চাপায় মেরুদণ্ড ভেঙে যাওয়া আয়েশা খাতুনের (২৫) থেরাপি অব্যাহত আছে। এই থেরাপি শেষে আগামী মাসে বলা যাবে আয়েশা আগের অবস্থায় ফিরতে পারবেন কি না। এসব জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। গতকালও ডা. সাঈদ উদ্দিন হেলালের নেতৃত্বে অন্তত ১২ জন চিকিৎসক আয়েশাকে পর্যবেক্ষণ করেছেন।

আয়েশার স্বামী তানজীর আহমেদ তাহের এ প্রতিবেদককে জানান, ব্রেনের সঙ্গে মেরুদণ্ডে সরাসরি যুক্ত স্পাইনাল কডটি পুরোপুরি ড্যামেজ হয়ে গেছে তার স্ত্রীর, যে কারণে ব্রেন থেকে কোমরে কোনো সংকেত পায় না। ফলে ভাঙা মেরুদণ্ডের ওই স্থানটি সম্পূর্ণ অবশ হয়ে আছে। চিকিৎসকরা বলছেন, এটি অস্ত্রোপচার করে ঠিক করা সম্ভব নয়। এদিকে দুই বাসের চাপায় হাত হারানো রাজীব হোসেনের অবস্থাও অপরিবর্তিত রয়েছে। গতকাল চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ভেন্টিলেটর মেশিনে রেখে কৃত্রিম শ্বাস-প্রশ্বাসের মাধ্যমে রাজীবকে বাঁচিয়ে রাখা হয়েছে। তার হার্ট নড়াচড়া করলেও ব্রেন একেবারেই কাজ করছে না। জিসিএস বা গ্লাসগো কমা স্কেল ব্রেনে আঘাতজনিত কারণে রোগীর কনসাশনেস লেবেল নির্ধারণ করা হয়। জিসিএস লেবেল সর্বোচ্চ ১৫ ও সর্বনিম্ন ৩ থাকে। ৭-৮ পর্যন্ত থাকলেও স্বাভাবিক বলে ধরে নেওয়া হয়। রাজীবের জিসিএস সর্বনিম্ন ৩। হাত, পা, চোখসহ শরীরের কোনো অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের নড়াচড়া নেই। শুধু বুকের খাঁচাটা ধীরলয়ে ওঠানামা করছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow