Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৭ মে, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৬ মে, ২০১৮ ২৩:০৯
মানুষের আস্থা অর্জনে পুলিশকে আরও সচেষ্ট হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী
কাজী শাহেদ, রাজশাহী

পুলিশকে সব সময় মানুষের আস্থা অর্জনে সচেষ্ট থাকার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দায়িত্ব পালনের সময় জনগণের অধিকার, মানবাধিকার ও আইনের শাসনকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। সমাজের নারী, শিশু ও প্রবীণদের প্রতি সংবেদনশীল আচরণ করতে হবে। মানুষ বিপদের সময় পুলিশের কাছে সাহায্যের জন্য আসে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সেবা ও মানবিক আচরণের মাধ্যমে মানুষের আস্থা অর্জনে পুলিশের প্রতিটি সদস্যকে সচেষ্ট থাকতে হবে। গতকাল রাজশাহীর সারদায় বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমির ৩৫তম বিসিএস (পুলিশ) ব্যাচের শিক্ষানবিস সহকারী পুলিশ সুপারদের সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী পুলিশ বাহিনীর প্রশংসা করে বলেন, অভ্যন্তরীণ শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষা, জননিরাপত্তা বিধান, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা, সন্ত্রাস ও অপরাধ দমন, গণতন্ত্র ও মানবাধিকার সমুন্নত রাখার পাশাপাশি বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ বজায় রাখতে পুলিশ সদস্যরা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বাংলাদেশের পুলিশ জাতিসংঘে শান্তিরক্ষা মিশনে দক্ষতা ও পেশাদারিত্বের জন্য বহির্বিশ্বে প্রশংসা অর্জন করেছে। পুলিশ বাহিনীকে নতুন চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, প্রযুক্তির উন্নয়নের পাশাপাশি বিশ্বব্যাপী অপরাধের ধরন দ্রুত পাল্টে যাচ্ছে। বিশেষ করে সাইবার অপরাধ নিয়ন্ত্রণে পুলিশকে দক্ষ হতে হবে। তিনি উল্লেখ করেন, সব ষড়যন্ত্র মোকাবিলায় সর্বদা বাংলাদেশ পুলিশ সাহসিকতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছে। জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ সারা বিশ্বের সমস্যা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমরা দক্ষতার সঙ্গে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস নিয়ন্ত্রণে সক্ষম হয়েছি। জঙ্গিবাদ দমনে বাংলাদেশ পুলিশের অব্যাহত সাফল্য শুধু দেশেই নয়, আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে। এ দেশের মাটিতে জঙ্গি, সন্ত্রাসী ও যুদ্ধাপরাধীদের আর স্থান হবে না বলেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ২০০৯ সাল থেকে পুলিশের আধুনিকায়নে কাজ করে চলেছি। ২০১৪ সালে বাংলাদেশ পুলিশে ৫০ হাজার জনবল সৃজনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ইতিমধ্যে ৪৬ হাজার পদ সৃজন করা হয়েছে।  প্রধানমন্ত্রী হেলিকপ্টারে বেলা ১১টা ২০ মিনিটে সারদায় পৌঁছেন। তিনি সারদার ঐতিহাসিক প্যারেডপ্রাউন্ডে উপস্থিত হয়ে ৩৫তম বিসিএস (পুলিশ) ব্যাচের শিক্ষানবিস সহকারী পুলিশ সুপারদের সমাপনী কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও অভিবাদন গ্রহণ করেন। পরে তিনি ভাষণ দেন। এ সময় অন্যদের মধ্যে প্যারেড গ্রাউন্ডে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরিফ ডিলু, বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী ইমাজ উদ্দিন প্রামাণিক, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) জাবেদ পাটোয়ারী, পুলিশ একাডেমির অধ্যক্ষ নাজিবুর রহমান এনডিসি, রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার নূর-উর-রহমান, ফারুক চৌধুরী এমপি, বেগম আক্তার জাহান এমপি, আয়েন উদ্দিন এমপি, এনামুল হক এমপি ও রাজশাহী নগর ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow