Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৪ মার্চ, ২০১৮ ১২:৪১ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৪ মার্চ, ২০১৮ ১২:৫২
কর্মক্ষেত্রে শব্দের ব্যবহারে সাবধান
অনলাইন ডেস্ক
কর্মক্ষেত্রে শব্দের ব্যবহারে সাবধান

কর্মক্ষেত্রে সহকর্মীদের সঙ্গে আচরণের মাধ্যমেই একজন মানুষের ব্যক্তিত্ব সম্পর্কে ধারণা করা যায়। তাই অফিসে অন্যের সঙ্গে আচার-আচরণ, কথাবার্তা বলার সময় সতর্ক থাকা জরুরি। আসলে কীভাবে ও কী শব্দ ব্যবহার করবেন এ ব্যাপারে সাবধানী হওয়া উচিত। তা না হলে হিতে বিপরীত ও অস্বস্তিকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। অন্যদের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপনে সবারই নিজস্ব ঢং থাকে। নিচে কর্মক্ষেত্রে কোন ধরনের শব্দ ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকতে হবে সেগুলো তুলে ধরা হলো :

যাই হোক : কোনো বিষয় এড়িয়ে যাওয়ার জন্য অনেকেই শব্দ দুটি ব্যবহার করেন। কিন্তু এতে ব্যক্তির দুর্বলতাই প্রকাশ পায়। এ ছাড়া কথাটির মাধ্যমে কোনো ঘটনার গুরুত্বও নষ্ট করে ফেলা যায়।

কুরুচিপূর্ণ শব্দ : কোনো অবস্থাতেই অফিসে বাজে কথা বলা যাবে না। কুরুচিপূর্ণ শব্দ আপনার অপেশাদার ও নির্বুদ্ধিতার পরিচয় ফুটিয়ে তোলে। বাজে কথার মানুষ কখনোই কর্মক্ষেত্রে স্বীকৃতি পায় না।

চিৎকার-চেঁচামেচি করা : ঘটনার ব্যাপকতার সঙ্গে কণ্ঠস্বর ওঠানামার একটা সম্পর্ক আছে, এ কথা ঠিক। কিন্তু কর্মক্ষেত্রে কখনোই চিৎকার-চেঁচামেচি করা উচিত নয়। এমনকি কারো বিশাল সাফল্যেও চিৎকার করে অভিনন্দন জানানোর দরকার নেই।

ও মাই গড! : উত্তেজনা বা বিস্ময় প্রকাশের আরও অনেক উপায় আছে। কিন্তু 'ও মাই গড' বলে কোনো আবেগ প্রকাশ করলে তা নেতিবাচক হিসেবেই গণ্য হয়।

আমি জানি, তাই না? :  কোনো বিষয়ে আপনি জানেন, তার জানান দিতে দোষ নেই। কিন্তু ‘আমি জানি, তাই না?’—এমন বাক্য প্রায়ই বিরক্তিকর ও অস্বস্তির কারণ হয়ে ওঠে।

অসাধারণ : প্রশংসার চূড়ান্ত প্রকাশ ঘটাতে পারে এ শব্দটি। কিন্তু প্রশংসা করার জন্য শব্দ বাছাইয়ের ক্ষেত্রে সাবধান।

শব্দের অপব্যবহার : যদি বিশেষ কোনো শব্দের অর্থ ও ব্যবহারিক প্রয়োগ না জানেন, তবে ভুলেও তা উচ্চারণ করবেন না। এতে হিতে বিপরীত হতে পারে। তবে বুঝেশুনে নতুন শব্দের প্রয়োগ দারুণ আনন্দ দিতে পারে। এ জন্য অভিধানের সহায়তা নিতে পারেন।

নিজের বানানো শব্দ : কোনো অবস্থাতেই এটা করতে পারেন না আপনি। অর্থহীন এসব শব্দ পেশাক্ষেত্রে কেনই বা বলতে যাবেন? 

বিডি প্রতিদিন/১৪ মার্চ ২০১৮/এনায়েত করিম

আপনার মন্তব্য

up-arrow