Bangladesh Pratidin

ফোকাস

  • চাটাইয়ে মুড়িয়ে প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধাকে রাষ্ট্রীয় সম্মান!
  • কেরানীগঞ্জে বাচ্চু হত্যায় ৩ জনের ফাঁসি, ৭ জনের যাবজ্জীবন
  • ৩ মামলায় জামিন চেয়ে হাইকোর্টে খালেদার আবেদন
  • হালদা নদীর পাড়ের অবৈধ স্থাপনা ভাঙার নির্দেশ
  • আফগানিস্তানের বিপক্ষে টাইগারদের টি-টোয়েন্টি দল ঘোষণা
  • কাদেরের বক্তব্যে একতরফা নির্বাচনের ইঙ্গিত: রিজভী
  • কলারোয়া সীমান্তে স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ বাংলাদেশিকে ফেরত দিল বিএসএফ
  • বিএনপি নির্বাচনে না এলেও গণতন্ত্র অব্যাহত থাকবে: কাদের
প্রকাশ : ১৫ মে, ২০১৮ ১৮:০২ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৫ মে, ২০১৮ ১৮:৩২
কাল চাঁদ দেখা গেলে বৃহস্পতিবার থেকে রোজা
রমজানের পবিত্রতা রক্ষায় র‌্যালি
নিজস্ব প্রতিবেদক
কাল চাঁদ দেখা গেলে বৃহস্পতিবার থেকে রোজা
প্রতীকী ছবি

কাল বুধবার পবিত্র রমজান মাসের চাঁদ দেখা গেলে আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে রোজা শুরু হবে। তবে চাঁদ দেখা না গেলে হিজরী শাবান মাস ৩০ দিন পূর্ণ করে শুক্রবার থেকে শুরু হবে মাহে রমজান। এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য কাল বাদ মাগরিব জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি বৈঠকে বসবে। বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদে অবস্থিত ইসলামিক ফাউন্ডেশন সভাকক্ষে এই সভা অনুষ্ঠিত হবে। 

বাংলাদেশের আকাশে কোথাও ১৪৩৯ হিজরি সনের পবিত্র রমজান মাসের চাঁদ দেখা গেলে তা ৯৫৫৯৪৯৩, ৯৫৫৯৬৪৩, ৯৫৫৫৯৪৭, ৯৫৫৬৪০৭ ও ৯৫৫৮৩৩৭ টেলিফোন নাম্বারে অথবা ৯৫৬৩৩৯৭ ও ৯৫৫৫৯৫১ ফ্যাক্স নম্বরে জানানোর জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।

রমজানের পবিত্রতা রক্ষায় র‌্যালি:
এদিকে রমজান মাসের পবিত্রতা রক্ষায় জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে বুধবার সকাল দশটায় র‌্যালি ও ধর্মীয় সমাবেশের আয়োজন করেছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন।  র‌্যালিটি বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেট থেকে শুরু হয়ে জাতীয় প্রেস ক্লাব, বাংলাদেশ সচিবালয় এবং জিপিও হয়ে বায়তুল মুকাররম মসজিদের দক্ষিণ গেটে এসে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হবে। ধর্ম মন্ত্রণালয় ও ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সর্বস্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ ৫ সহস্রাধিক আলেম-ওলামা ও খতিব-ইমাম এই র‌্যালি ও সমাবেশে অংশ নিবেন বলে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

সারাদেশে একই পদ্ধতিতে তারাবীহ্ পড়ার আহবান:
পবিত্র রমজান মাসে সারাদেশে সকল মসজিদে একই পদ্ধতিতে খতম তারাবীহ্ পড়ার জন্য মসজিদের খতিব-ইমাম, মসজিদ কমিটি, মুসলি­সহ সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন। এ জন্য রমজানের প্রথম ৬ দিনে দেড় পারা হিসাবে ৯ পারা এবং বাকি ২১ দিনে ১ পারা হিসাবে ২১ পারা তিলাওয়াত করে ২৭ রমজান রাতে অর্থাৎ পবিত্র লাইলাতুল কদরে রাতে কুরআন খতম করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে। দেশবরেণ্য আলেম-ওলামা, পীর-মাশায়েখ ও খতীব-ইমামরা এ পদ্ধতিতে খতম তারাবীহ্ পড়ার পক্ষে অভিমত দিয়েছেন বলেও ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়। 

রমজান উপলক্ষে পৌনে ৭লাখ কোরআন বিতরণ:
এছাড়া পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে মাস নানা কর্মসূচি বাস্তবায়ন করবে ইসলামিক ফাউন্ডেশন। এরমধ্যে রয়েছে মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা প্রকল্পের আওতায় ৬৭ হাজার ৩৬৮টি শিক্ষা কেন্দ্রের প্রতিটিতে ১০টি করে ৬ লক্ষ ৭৩ হাজার ৩৬৮টি পবিত্র কুরআন শরীফ বিনামূল্যে বিতরণ করা, বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদে ১ হতে ২৫ রমযান বয়স্কদের জন্য বোগদাদী কায়দায় কুরআন শিক্ষা প্রদান, বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের পূর্ব সাহানে প্রতিদিন প্রায় ৪ হাজার রোজাদার মুসলি­দের জন্য বিনামূল্যে ইফতারের ব্যবস্থা, বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের দক্ষিণ চত্বরে ১ রমজান থেকে মাসব্যাপি ইসলামি বইমেলা পরিচালনা, বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের দক্ষিণ সাহানে মাসব্যাপি হালাল পণ্য বিক্রয় ও প্রদর্শনী এবং মসজিদের উত্তর সাহানে ইসলামি ক্যালিগ্রাফি, পুস্তক ও নবী করিম (সা.) এর জীবনীভিত্তিক পোস্টার প্রদর্শনী।


বিডি প্রতিদিন/১৫ মে ২০১৮/হিমেল

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow