Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৪ জুন, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৪ জুন, ২০১৮ ০১:৩৬
জঙ্গিবাদের অভিযোগ
জামিন পেলেন সেই নাবিলা
প্রতিদিন ডেস্ক

গ্রেফতারের আড়াই মাস পার হওয়ার আগেই জামিন পেলেন নব্য জেএমবির সিস্টার উইংয়ের সাবেক প্রধান নারী জঙ্গি হুমায়ারা ওরফে নাবিলা। যাকে সংগঠনে ‘ব্যাট উইমেন’ বলে ডাকা হতো। তিনি নব্য জেএমবির আরেক শীর্ষ জঙ্গি তানভির ইয়াসিন করিমের স্ত্রী। তানভীর এখনো কারাবন্দি। মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালত থেকে তিনি জামিন পান। গতকাল সন্ধ্যায় কাশিমপুরের মহিলা কারাগার থেকে তার মুক্তি পাওয়ার কথা। কাশিমপুর মহিলা কারাগারের জেল সুপার মোহাম্মদ শাজাহান বিকালে গণমাধ্যমকে বলেন, ‘হুমায়ারা ওরফে নাবিলার জামিনের কাগজ পেয়েছি। তার কারামুক্তির প্রক্রিয়া চলছে।’ গত বছরের ১৫ আগস্ট ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বোমা হামলা চালিয়ে মন্ত্রী-এমপিসহ শতাধিক মানুষকে হত্যার যে পরিকল্পনা করেছিল জঙ্গিরা, সেই ঘটনার অর্থের জোগানদাতা ছিল তানভীর ও তার স্ত্রী হুমায়ারা। পুলিশি তৎপরতায় হামলায় ব্যর্থ হয়ে সাইফুল নামে এক জঙ্গি পান্থপথের হোটেল ওলিও ইন্টারন্যাশনালে বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নিজেই নিহত হন। এ ঘটনায় গত  ৫ এপ্রিল রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরী এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় হুমায়ারা ওরফে নাবিলাকে।ঢাকার কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট- সিটিটিসির কর্মকর্তারা বলছেন, হুমায়ারা তার এক বান্ধবীর মাধ্যমে জঙ্গিবাদে উদ্বুদ্ধ হন। তারা নিয়মিত গুলশান এলাকায় হালাকা (একসঙ্গে মিলিত হয়ে সাংগঠনিক আলোচনা করা) করতেন। ঢাকার নর্থসাউথ ইউনিভার্সিটি থেকে বিবিএ সম্পন্ন করা হুমায়ারা ওরফে নাবিলা মালয়েশিয়ার লিংকন ইন ইউনিভার্সিটিতে মাস্টার্স সম্পন্ন করেন। সেখানেই তার সঙ্গে নব্য জেএমবির সর্বশেষ আমির হিসেবে দায়িত্ব পালন করা আকরাম হোসেন নিলয়ের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। পরে তারা ঢাকায় ফিরে নব্য জেএমবির সিস্টার উইং নামে একটি শাখা তৈরি করে। সিটিটিসি সূত্র বলছে, সাংগঠনিক পরিচয়ে বিয়ের পর স্বামী তানভীরসহ একযোগে জঙ্গি কার্যক্রমে যুক্ত হয়ে পড়ে। স্বামী তানভীরকে গত বছরের ১৯ নভেম্বর গুলশান এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। এরপর থেকে আত্মগোপনে থেকে জঙ্গিবাদী কার্যক্রম চালিয়ে আসছিলেন হুমায়ারা ওরফে নাবিলা। সংগঠনের সদস্যরা তাকে সাহসী নারী হিসেবে ‘ব্যাট উইমেন’ বলে ডাকতেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow