Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১১:২৮ অনলাইন ভার্সন
প্রহরের গান- ৭
দিদার মুহাম্মদ
প্রহরের গান- ৭

একান্ত নিঃসঙ্গতার কিছু ধ্বনি আছে

বেথোভেন জানে আমি জানি না
দীর্ঘশ্বাস বয়ে চলার কতক শীতলতা আছে
জীবনানন্দ জানে আমি জানি না

ক্রমশ শীতল হয়ে আসা দীর্ঘশ্বাসের একটা ধ্বনি আছে
রবীন্দ্রনাথ জানে কিনা জানি না
তবে আমি জানি না
কম বেতনে সংসার চালাতে জানেন আমার আব্বা
রবীন্দ্রনাথ জানতেন না, আমিও জানি না

সোনাভান ভরা যৌবন সাঁতরে ফিরে এসেছে
নূরজাহানের বুড়ো শুকনো হাড্ডি আছাড় খেয়ে ভাংবার পর
আর ঠিকঠাক জোড়া লাগেনি, 
আমার আর্থ্রাইটিজ আছে
এসবের কিছুই জানতো না শেক্সপিয়ারের চরিত্ররা
আমি মাঝে মাঝে নিজেকে গ্লাডিয়েটর ভাবতাম
যদিও আমার আর্থ্রাইটিজে ভয় অাছে

তবে নিঃসঙ্গতা মুক্তিদায়ক
নিঃসঙ্গতা মদের মোহ জানে না
আমি মদের গন্ধ সহ্য করতে পারি না
কথার কোন কনক্লুশন নেই
কারণ কথাই নেই
জায়নামাজ লাগে নামাজ পড়তে জীবু বলেছে
জায়নামাজ অতি মোলায়েম
এক বড় আপু দিয়েছে
এইযে ঠাণ্ডা শীতলতা! ওযু কে করে
ওযুও শালা, ওযু ছুটে যায়
এ বিষয়গুলো শার্ল বোদলেয়ার না জানলেও
থিয়েটার আর বেশ্যালয় নিয়ে মাথা ঘামাতেন

আমি ভাবছি
আবার লিখবো প্রেমের কবিতা
তিল তিল করে বেড়ে ওঠা বেদনার সুরে
কিংবা নির্বাচিত বেদনার কথা
দুটি ডুমুরফুল অথবা দুটি হাতের কবিতা
আমার একান্ত প্রার্থনার কথা
তৃষ্ণা ও বিসর্জনের কথা
শুধু সে জানবে না,
যার জন্য এত সব

কবি: প্রাক্তন শিক্ষার্থী, বাংলা বিভাগ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়। বর্তমান শিক্ষার্থী, মাস্টার অব পারফর্মিং আর্টস​, বেঙ্গালুর বিশ্ববিদ্যালয়, ভারত।

 

বিডি প্রতিদিন/৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/হিমেল

আপনার মন্তব্য

up-arrow