Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১১:০২ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৪:০৩
পাঠক কলাম
কাল সমাপ্তি ঘটছে শাকিব-অপুর সংসারের
সুলতানা ইসলাম
কাল সমাপ্তি ঘটছে শাকিব-অপুর সংসারের

ঢালিউডের আলোচিত জুটি শাকিব খান-অপু দম্পতির বিচ্ছেদটা অনুমিতই ছিল। দীর্ঘ সময় ধরে লোকচক্ষু ফাঁকি দিয়ে সংসার করে গেছেন। একের পর এক হিট সিনেমা উপহার দিয়েছেন জুটি হিসেবে। পর্দায় তাদের রসায়ন দেখে বিমোহিত দর্শকদের খুব কম অংশই টের পেয়েছিলেন পর্দার পেছনে তাদের ঘরকন্নার কথা। সুখের এ সংসারে ঝড় উঠে গত বছরের মাঝামাঝি। অপু বিয়ের খবর প্রকাশ করে দেন, একমাত্র সন্তান আব্রাম খান জয়কে সবার সামনে নিয়ে আসেন।

এরপর শাকিব-অপুর সংসারের ভেতরকার একের পর এক বিস্ফোরক তথ্য সবার সামনে বেরিয়ে আসতে থাকে। পাল্লা দিয়ে সম্পর্কও খারাপ হতে থাকে তাদের দাম্পত্য সম্পর্ক। পরস্পরকে দোষারোপ করা শুরু করেন তারা। বিয়ের খবর প্রকাশ করে দেয়াতেই অপুর ওপর বেশি ক্ষিপ্ত হন অপুর। বিয়ের খবর প্রকাশ্যে আসার পর খুব কমই তারা মুখোমুখি হয়েছেন। কিন্তু গণমাধ্যমের বরাতে তারা পরস্পরবিরোধী বক্তব্য এবং তার পাল্টা জবাব দিয়েছেন।

তারপরও ভক্তদের আশা ছিল সব ভুলে তারা এক হবেন। কিন্তু সে আশাও ধূলিস্যাৎ হয় ২২ নভেম্বর অপুকে পাঠানো শাকিবের তালাকনামার মধ্য দিয়ে। গত ডিসেম্বরে এফডিসিতে শাকিবকে বাংলাদেশ ফিল্ম ক্লাবের দেয়া সম্মাননা গ্রহণ করেন অপু। সেসময় শাকিবের জন্য দোয়াও চেয়েছিলেন। এজন্য ধারণা করা হচ্ছিল, তাদের বরফ বোধ গলতে শুরু করেছে। কিন্তু তা হয়নি। তাদের মধ্যকার সম্পর্কের বরফ আরও জমাট বেঁধেছে। প্রায় এক বছর শাকিব-অপুর বিয়ে, দেনমোহরসহ নানা বিতর্কে শোবিজপাড়া সরগরম ছিল। আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি যার যবনিকাপাত ঘটছে। আগামীকালই আনুষ্ঠানিক ঘটছে শাকিব-অপুর সংসারের।বিয়ে নিয়ে যেসব বিতর্ক হয় শাকিব-অপুকে নিয়ে:

বিয়ের তারিখ
শাকিব-অপুর বিয়ের তারিখ নিয়েও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয় শাকিবকে ভালোবেসে ধর্মান্তরিত হয়ে ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল বিয়ের করেন অপু। কিন্তু তাকে পাঠানো তালাকনামায় বিয়ের তারিখ হিসেবে শাকিব লিখেছেন ১৬ মার্চ। 

দেনমোহর বিতর্ক
শাকিব বলেছেন, অপুর সঙ্গে তার বিয়ের দেনমোহর ৭ লাখ ১ টাকা। অপু বলেছেন, দেনমোহরের পরিমাণ ছিলো ১ কোটি ৭ লাখ টাকা! তবে কেউ এখনো কোন প্রমাণ দেখাতে পারেননি।

কাজী নিয়ে বিতর্ক
অপু জানান, তাদের বিয়ের কাজী শাকিবের পরিচিত। শাকিবের গ্রামের বাড়ি থেকে ওই কাজীকে আনা হয়। কিন্তু শাকিব বলেছেন, বিয়ের কাজী অপুর পরিচিত।

বয়ফ্রেন্ড বিতর্ক
গণমাধ্যমে শাকিব দাবি করেছেন, অপু বয়ফ্রেন্ড নিয়ে কলকাতায় ঘুরতে গেছেন। কিন্তু অপু বিশ্বাস বলেছেন, যারা বয়ফ্রেন্ডের খবর প্রকাশ করেছে তারা মানসিকভাবে অসুস্থ। 

তালা বিতর্ক
অপুর সঙ্গে তিক্ততা শুরু হলেও সন্তান জয়ের সঙ্গে যোগাযোগ রাখেছেন শাকিব। তবে এ নিয়েও শুরু হয় বিতর্ক। গত নভেম্বরে শাকিব দাবি করেন, জয়ের সঙ্গে তিনি দেখা করতে গিয়ে দেখেন অপুর বাসায় তালা। অপু গৃহকর্মীর কাছে সন্তান রেখে বিদেশ চলে গেছেন। 

এ নিয়ে পাল্টা হিসেবে অপু বলেছেন, 'তালা দেয়া ছিল না। ভেতর থেকে দরজা বন্ধ ছিল।' ঘরে গৃহকর্মীর কাছে নয়, নিজের বোনের কাছে সন্তানকে রেখে গেছেন। তার কাছে তালার চাবিও ছিল!

সন্তানকে নিয়ে বিতর্ক
এটাই শাকিব-অপু দম্পতিকে নিয়ে সর্বশেষ বিতর্ক। গত রবিবার রাতে দেশে ফিরে সোমবার রাতেই শাকিব উড়াল দেন অস্ট্রেলিয়ায়। যাওয়ার আগে গণমাধ্যমকে বলেন, কয়েক দিন ধরে বাচ্চাটার জন্য মনটা খুব কাঁদছিল। তাই তাড়াহুড়ো করে অল্প সময় নিয়ে জয়কে দেখতে এসেছি। কিন্তু মনে বড় কষ্ট নিয়ে ফিরে যাচ্ছি। অপু বাচ্চাটাকে দেখতে দিল না আমাকে।

এর জবাবে অপু বলেছেন, ছেলেকে দেখতে চেয়ে শাকিব কোনো যোগাযোগই করেননি। শাকিবের কোনো কল আসেনি। তার কোনো লোকও আমাকে কল দেয়নি।আমাকে এসএমএসও করেনি। আদৌ শাকিব বাচ্চাকে দেখতে চেয়েছে কী না তাও জানি না।

অপু আরও জানান, তালাকনামা পাঠানোর পর আর জয়ের সঙ্গে দেখা করেননি শাকিব। 

(পাঠক কলাম বিভাগে প্রকাশিত মতামত একান্তই পাঠকের, তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়) 

বিডি প্রতিদিন/২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮/ফারজানা

আপনার মন্তব্য

up-arrow