Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৭ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৬ এপ্রিল, ২০১৮ ২৩:২২
বিশ্বকাপে বাংলাদেশের খুদে ফুটবলার রাফি
ক্রীড়া প্রতিবেদক
বিশ্বকাপে বাংলাদেশের খুদে ফুটবলার রাফি

নিজেদের গর্বিত ভাবতেই পারেন বশির উদ্দিন রতন আর মেহবুবা রতন। তিন মিনিটের ব্যবধানে তাদের ঘরে জন্ম নেওয়া রাব্বি ও রাফি এক বছরের ব্যবধানে রাশিয়া যাচ্ছে। গত বছর রাশিয়া গিয়েছিল যমজ ছেলের বড়জন রাব্বি, এবার যাচ্ছে তার ৩ মিনিটের ছোট রাফি। আগামী জুনে রাশিয়ায় শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ ফুটবল। একই মাসে মস্কোতে হবে ২১১ দেশের খুদে ফুটবলারদের নিয়ে ফেস্টিভ্যাল। সেখানে বাংলাদেশের প্রতিনিধি হয়ে যাচ্ছে রাফি। একই অনুষ্ঠানে দুই যমজের বড়জন রাব্বি গিয়েছিল গত বছর। রাফি অবশ্য বাড়তি উপহার পাচ্ছে। মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে দেখতে পাবে রাশিয়া ও সৌদি আরবের লড়াই। রাফির মতোই বিশ্বের আরও ১১০টি দেশের খুদে ফুটবলাররাও এই ম্যাচ দেখার সুযোগ পাবে। এই ফুটবল ফেস্টিভ্যালে ২১১ দেশ থাকলেও খেলবে ৬৪ দেশের ফুটবলাররা। এ ৬৪ দেশের মধ্যে আছে বাংলাদেশও। ৭ জুন রাফিকে নিয়ে রাশিয়া যাবেন বাফুফের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান কমিটির সদস্য হারুনুর রশিদ। বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচ স্টেডিয়ামে বসে দেখার বিষয়টা রোমাঞ্চিত করছে সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া রাফিকে। ‘কখনো এমন কিছু ভাবিনি। বিশ্বকাপের খেলা টিভিতে দেখেছি। এবার স্টেডিয়ামে বসে বিশ্বকাপ দেখব। খুবই ভালো লাগছে।’ এমনটাই বলছিল ভাগ্যবান খুদে ফুটবলার রাফি।

গত মার্চে উম্মুক্ত ট্রায়ালের মাধ্যমে রাফিকে বাছাই করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। ২০০ খুদে ফুটবলার এ ট্রায়ালে অংশ নিয়েছিল। তার মধ্যে থেকে রাফি নির্বাচিত হয়েছে রাশিয়ার এই খুদে ফুটবলারদের ফেস্টিভ্যালের জন্য।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow