Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : শুক্রবার, ১৮ মে, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৭ মে, ২০১৮ ২৩:১৩
বিশ্বকাপ জিততে মরিয়া নেইমার
ক্রীড়া প্রতিবেদক
বিশ্বকাপ জিততে মরিয়া নেইমার

বিশ্বকাপের বাকি নেই বেশিদিন। ২৮ দিন পরই গোটা বিশ্ব বাধা পড়বে এক সুতোয়। ফুটবলপ্রেমীরা মেতে উঠবেন ফুটবল সৌকর্য্য দেখতে। দলগুলোও গুছিয়ে নিচ্ছে নিজেদের। এরই মধ্যে দলগুলো প্রাথমিক স্কোয়াড ঘোষণা করছে। অনেক ফুটবলার ইনজুরিতে পড়ে ছিটকে পড়ে মরা কান্নায় ভেঙে পড়ছেন। ফুটবলপ্রেমীরা সবাই যখন নিজ নিজ দলের সাফল্য পেতে উদগ্রীব, তখন ব্রাজিল সমর্থকদের মুখে হাসি ফুটিয়েছেন নেইমার। ইনজুরিতে যার বিশ্বকাপ অনিশ্চিত হয়েছিল, সেই নেইমার আশার কথা শুনিয়েছেন ফুটবলভক্তদের। জানিয়েছেন, বিশ্বকাপে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে ফিরবেন। শুধু তাই নয়, সমর্থকদের স্বপ্ন দেখতেও বলেছেন। জানিয়েছেন, রাশিয়া বিশ্বকাপের শিরোপা জেতাই একমাত্র টার্গেট ব্রাজিলের। দ্বিতীয় হওয়া ব্রাজিলিয়ানদের কাছে গুরুত্বহীন।

আড়াইমাস আগে ফ্রেঞ্চ লিগে মার্সেইর বিপক্ষে ম্যাচে প্যারিস সেন্ট জার্মেইনের পক্ষে খেলার সময় আহত হয়েছিলেন নেইমার। ইনজুরিতে বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার আশঙ্কা জন্ম নিয়েছিল। কিন্তু সঠিক চিকিৎসায় ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন। বিশ্বকাপ খেলবেন বলে জানিয়েছেন পাঁচবারের বিশ্বসেরা ব্রাজিলের মূল খেলোয়াড়।

ব্রাজিল সর্বশেষ বিশ্বকাপ জিতেছিল ২০০২ সালে। এরপর আর শিরোপার ধারে কাছে যেতে পারেনি। যদিও ২০১৪ সালে ঘরের মাঠে আয়োজন করে স্বপ্ন দেখেছিল শিরোপার। কিন্তু সেমিফাইনালে জার্মানির কাছে ১-৭ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছিল। ওই হারে গোটা ব্রাজিল কান্নায় ভেঙে পড়েছিল। নেইমার প্রিয় দলে বিধ্বস্ত রূপ দেখেছিলেন মাঠের বাইরে সাজঘরে বসে। কোয়ার্টার ফাইনালে কলম্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে ইনজুরিতে পড়ে ছিটকে পড়েছিলেন বিশ্বকাপ থেকে। ইনজুরিতে পড়ে কান্নায় ভেঙে পড়েছিলেন নেইমার। তার কান্নার সঙ্গী হয়েছিলেন ফুটবলপ্রেমীরা। এবারও যখন ইনজুরিতে পড়েন, তখন সমর্থকদের মনে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছিল। তবে এখন আশ্বস্ত হয়েছেন সবাই নেইমারের কথায়। নেইমারও বিশ্বকাপ খেলার জন্য মরিয়া। সুস্থ হতে চেষ্টার সর্বোচ্চটাই করেছেন পিএসজি তারকা। অনুশীলন করছেন। আর ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে প্রস্তুত হচ্ছেন ১৭ জুন সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ব্রাজিলের পক্ষে নামতে। ফেসবুকে নেইমার প্রিয় সমর্থকদের আশ্বস্ত করেছেন নিজের সুস্থতার বিষয়ে, ‘ইতিমধ্যেই বল নিয়ে অনুশীলন শুরু করেছি। বেশ ভালো লাগছে। এটাও সত্যি, কিছুটা ভয়ও পাচ্ছি। একই সঙ্গে এটাও সত্যি, ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরছি।’

ব্রাজিল বিশ্বকাপ জিতেছে সর্বোচ্চ পাঁচবার। চারবার করে জিতেছে জার্মানি ও ইতালি। দুবার জিতেছে আর্জেন্টিনা ও উরুগুয়ে। একবার করে জিতেছে স্পেন, ফ্রান্স ও ইংল্যান্ড। ব্রাজিলের এবার টার্গেট ষষ্ঠ শিরোপা। শিরোপা জেতাই মূল টার্গেট বলতে দ্বিধা করেননি নেইমার, ‘ফুটবল খেলা আমাকে সবচেয়ে বেশি প্রেরণা জোগায়। আমার কাছে সবচেয়ে আনন্দের বিষয় মাঠের ভিতর থাকাটা। বিশ্বকাপ এই বিশ্বের সবচেয়ে বড় চ্যাম্পিয়নশিপ। আমি এখানে খেলে চ্যাম্পিয়ন হতে চাই। এই কাপটা আমার হতেই হবে।’

বিশ্বকাপ শুরু ১৪ জুন। অংশ নিবে বিশ্বের সেরা ৩২টি দেশ। অথচ নেইমার, মেসি, রোনালদো, সুয়ারেজদের ফুটবল সৌন্দর্য দেখতে মুখিয়ে আছে বিশ্বের ৭০০ কোটি মানুষ। নেইমার চাইছেন বিশ্বকাপ জিতে বিশ্বের ষষ্ঠ বৃহত্তম দেশটিকে উৎসব-উচ্ছ্বাসের রঙে রাঙাতে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow