Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৪ জুন, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৪ জুন, ২০১৮ ০১:৫১
সৌদিকে কঠিন প্রতিপক্ষ মানছে রাশিয়া
ক্রীড়া প্রতিবেদক, মস্কো থেকে
সৌদিকে কঠিন প্রতিপক্ষ মানছে রাশিয়া
অনুশীলনে ব্যস্ত রাশিয়ান ফুটবল দল —এএফপি

মস্কোর সকালটা ঠাণ্ডা হিমেল হাওয়ায় ভেসে যায়। লোকেরা ঘুম ভেঙে কাজে বেরোয় ৯টার পর। এর অবশ্য বিকল্পও নেই। গ্রীষ্মকালেও পৌষের কনকনে শীত এখানে। চোখ মেলে রোদ এলেই কেবল বাইরে বেরোনো যায় নির্বিঘ্নে। তারপরও অনভ্যস্তদের বাড়তি প্রস্তুতি নিতে হয়। পোশাকের পরিমাণ কম হলেই বিপদ। এমন শীতের রাজ্যেও এখন উত্তেজনার পারদ চড়ছে হুড়মুড়িয়ে। এই উত্তাপ, ফুটবলের উত্তাপ। রাশিয়া তো বটেই, মহাদেশের সীমানা ছাড়িয়ে যা পৌঁছে গেছে দূর দূরান্তে। বিশ্বকাপ এমনই। শীতের প্রকোপ কমিয়ে দেয়! ভুলিয়ে দেয় বর্ণ-গোত্র। সুদূর ল্যাটিন আমেরিকার একজন দর্শকও আপনার পরম ভক্ত হতে পারে। লুইস সুয়ারেজকে ভালোবাসলে উরুগুয়ের সবাই ভালোবাসবে আপনাকে। মেসি-নেইমারের জন্য মেলবন্ধন তৈরি হয় ইউরোপ ও এশিয়ার সঙ্গে ল্যাটিন আমেরিকার। সারা বিশ্বকে এক সুতোয় বাঁধতেই আজ থেকে শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ। দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ। স্বাগতিক রাশিয়া ও সৌদি আরব ম্যাচ দিয়ে যাত্রা করছে ২১তম বিশ্বকাপ। লুঝনিকি স্টেডিয়ামের ভিতরটা ফিফার কল্যাণে দেখা গেল। ৮১ হাজার দর্শকের জন্য বসানো হয়েছে লাল, কালো, হলুদ রঙের চেয়ার। মাঠটা নিপাট। কোথাও কোন ভাঁজ নেই। এই মাঠেই গতকাল অনুশীলন করল স্বাগতিক রাশিয়া। পরে সৌদি আরব। আজকের উদ্বোধনী ম্যাচের দুই দল। উদ্বোধনী ম্যাচের আগে অফিশিয়াল সংবাদ সম্মেলনে এলেন রাশিয়ার কোচ চেরচেসভ ও দলের অন্যতম মিডফিল্ডার আলেক্সান্ডার সামেদভ। নিজ দেশে বিশ্বকাপ। সমর্থকদের বিপুল প্রত্যাশা। কী করবেন ম্যাচের আগের রাতে! আলেক্সান্ডার সামেদভ বললেন, ‘সবকিছুই স্বাভাবিক থাকবে আশা করছি। কেউ কেউ হয়ত পুল খেলে সময় কাটাবে। অন্যরাও ব্যস্ত থাকবে নানান বিষয় নিয়ে। এটা আরও একটা রাত কেবল।’ এই যে পরিণত সুরে কথাগুলো বললেন সামেদভ চার বছর আগে কিন্তু তেমন ছিলেন না। ব্রাজিল বিশ্বকাপে রাশিয়ানদের ফলটা খুব বাজে ছিল। সামেদভ অবশ্য এবারে খুব আত্মবিশ্বাসী। ‘তখন আমি মানসিক দিক দিয়ে এতটা আত্মবিশ্বাসী ছিলাম না। এখন যেমন আছি।’ সৌদি আরবের বিপক্ষে ম্যাচটাকে খুবই গুরুত্ব দিচ্ছে রাশিয়া। প্রথম ম্যাচটা জিতে যেমন ভক্তদের আশা পূরণ করার ব্যাপার রয়েছে, তেমনি দ্বিতীয় রাউন্ডে স্থান পাকা করার বিষয়টাও রয়েছে। পরের দুটি ম্যাচ উরুগুয়ে এবং মিসরের সঙ্গে। অবশ্য হেড-টু-হেডে রাশিয়া পিছিয়ে আছে সৌদি আরবের সঙ্গেই! দুই দলের একমাত্র সাক্ষাৎ ১৯৯৩ সালে। সেবার ৪-২ গোলে জিতেছিল সৌদি আরব। এদিকে সৌদি আরব দিন কয়েক আগে জার্মানির মতো দলের সঙ্গে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে। তাদেরকে খেলতে দেখে কপালে ভাঁজ পড়েছে রাশিয়ান কোচ চেরচেসভের। কোচ বললেন, ‘আমি তাদেরকে জার্মানির বিপক্ষে খেলতে দেখেছি। তারা সত্যিই দারুণ খেলেছে।’ অবশ্য উদ্বোধনী ম্যাচটা জিতে সমর্থকদের আশা পূরণ করতে চান তিনি। সৌদি আরবের কোচ পিজ্জি বলে গেলেন, ‘উদ্বোধনী ম্যাচ খেলাটা দারুণ ব্যাপার। বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচের অংশ হওয়াটা সত্যিই অসাধারণ। আমরা নিজেদের সেরা ফুটবলটাই খেলতে চাই। যাতে সৌদি আরবের সবাই খুশি থাকে।’ সৌদি আরবের অধিনায়ক উসামাও সুর মেলালেন কোচের সঙ্গেই। ভালো ফুটবল খেলতে চান তারা। আজ দারুণ একটা রেকর্ড গড়ছে সৌদি আরব। এশিয়ান কোনো দল প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচ খেলতে নামবে। কেবল রাশিয়া-সৌদি আরব ম্যাচই নয়, আজ মস্কো রাঙাবেন বিশ্বজোড়া খ্যাতি অর্জন করা সংগীতজ্ঞরাও। রবি উইলিয়ামস গান গাইবেন। তার সঙ্গে যোগ দিবেন রাশিয়ার বিখ্যাত শিল্পী আইডা গ্যারিফুলিনা। তাদের সঙ্গে স্টেজ মাতাবেন দুবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলিয়ান তারকা রোনাল্ডোও। লুঝনিকিতে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান চলাকালীনই রেড স্কয়ারে চলবে কনসার্ট। তাছাড়া ফ্যান জোনে তো ফুটবল উন্মাদনার ব্যবস্থা থাকছেই। সবমিলিয়ে বিশ্বকাপ কেবল রাশিয়ানদের জীবনটাই বদলে দিচ্ছে না, আগামী এক মাস বদলে দিচ্ছে দুনিয়ার কোটি কোটি ফুটবলপ্রেমীর জীবনধারাও।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow